ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের কাছে সাধারণ ছাত্ররা জিম্মি হয়ে পড়েছে : শিবির সভাপতি

ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, একের পর এক নজিরবিহীন অপকর্মের ঘৃণ্য উদাহরণ সৃষ্টি করে চলেছে ছাত্রলীগ। এখন পর্যন্ত এসব সন্ত্রাসের দৃষ্টান্তমূলক কোন বিচার হয়নি। উল্টো অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদেরকে প্রশ্রয় দিয়ে তাদেরকে পুরস্কৃত করা হচ্ছে। ফলে ক্যাম্পাস গুলোতে তীব্র অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের কাছে সারাদেশে সাধারণ ছাত্ররা জিম্মি হয়ে পড়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার কুমিল্লার এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবির অঞ্চল সদস্য প্রার্থী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।কেন্দ্রীয় কলেজ সম্পাদক মারুফুল ইসলামের পরিচালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় দাওয়াহ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, কুমিল্লা মহানগরী সভাপতি শাহাদাত হোসেনসহ প্রমুখ।

ইয়াছিন আরাফাত বলেন, দেশজুড়ে খুন, হত্যা, টেন্ডারবাজি, ভর্তি-বাণিজ্য আর শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর নিপীড়নে এখন ত্রাসের নাম ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের নজিরবিহীন সন্ত্রাস ও তাণ্ডবলীলায় ক্যাম্পাসগুলো সন্ত্রাসের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে টেন্ডারবাজি, প্রশ্নফাঁস, শিক্ষক লাঞ্ছনা মাদক, ইভটিজিং, অস্ত্রবাজি, সন্ত্রাস ও অপকর্মের চারণভূমিতে পরিণত করেছে তারা। সরকারের মদদপুষ্ট ও পুলিশের বলয়ে থাকা এই গুটি কয়েক ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে জিম্মি করে রেখেছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বেপরোয়া ছাত্রলীগ।

শিবির সভাপতি বলেন, পুলিশ ও প্রশাসনের অনৈতিক সহযোগিতায় ক্যাম্পাসে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করতে ভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীদের খুন, হামলা, নির্যাতন করে যাচ্ছে। হামলা করছে নিরপরাধ ছাত্রদের উপর। অথচ পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিজেদের দায়িত্ব-কর্তব্যকে জলাঞ্জলি দিয়ে ছাত্রলীগের ইচ্ছামতো সাধারণ ছাত্রদের জীবনকে হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে। যার মাধ্যমে ক্যাম্পাসগুলোকে ভীতির উপত্যকায় পরিণত করেছে তারা।

এ সময় অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের বিচারের আওতায় আনা এবং ক্যাম্পাসে প্রতিটি শিক্ষার্থীর নিরাপত্তায় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ, ক্যাম্পাসে সবার সহবস্থান ও শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বিজ্ঞপ্তি।

Comments Us On Facebook: