Saturday , October 20 2018
Home / আলোচিত সংবাদ / তাবলীগ জামায়াতের দুই গ্রুপের দ্বন্দ চরমে !

তাবলীগ জামায়াতের দুই গ্রুপের দ্বন্দ চরমে !

আমি সহ্যের বাইরে চলে গেছি, তবে এবার আমি সিরিয়াস! আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী সাহেবকে নিয়ে কোথায় কটুক্তি করেছি তার প্রমাণ দিতেই হবে! অন্যথায় আমাকে নিয়ে ভরা মজলিসে মিথ্যাচার ও হেয় করার কারণে আদালতের দ্বারস্থ হবো আমি! বহু সহ্য করেছি।

কাসেমী সাহেবের বিরুদ্ধে আমাকে প্রথম দাঁড় করিয়েছিলো জমিয়তের ওয়ালী উল্লাহ আরমান এবং তা তার মনগড়াভাবে। আমার ছবিতে ক্রস দিয়ে বিশ্রি ভাষায় পোস্ট দিয়েছিলো সে। লিখেছিলো আমি নাকি কাসেমী সাহেবকে জাহান্নামী বলেছি! সেই থেকে উশৃঙ্খল কিছু আইডি থেকে প্রমাণ ছাড়াই আমার নামে যা তা বলে যাচ্ছে। অনেকে আমার নাম বিকৃত করে উপস্থাপন করেছে। কারা কারা এসব করে এসছে, দলীল প্রমাণসহ সেসব মওজুদ আছে আমার কাছে। জঘন্য অপবাদ দিয়েছে তারা আমার বিরুদ্ধে। বরাবরই এসব এড়িয়ে গেছি। কিন্তু এবার চুপ থাকা সম্ভব নয়। হয়তো আমার নামে মিথ্যাচার করায় প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে তাদের, নয়তো প্রত্যেককে আদালতে দাঁড় করাবো ইনশাআল্লাহ।

কিছু বলতে চাইলে প্রমাণ সহকারে বলুন! একজন বললো আর প্রমাণ ছাড়া সেটা আপনি যখন তখন যেখানে সেখানে বলে বেড়াবেন? না, এতোটা হজম করা সম্ভব নয়! একটা আওয়াজ উঠিয়ে দিলো ‘মিছবাহ মুরব্বীদের নিয়ে কটুক্তি করে!’ কখন কোথায় কোন মুরব্বীকে নিয়ে কটুক্তি করেছি আপনারা বলুন তো! ঐ যে বললাম, একজন আওয়াজ উঠিয়ে দিয়েছে আর বাকিরা সেই আওয়াজ দোহরাচ্ছে।

দেশের একটা ঐতিহ্যবাহী মাদরাসার মঞ্চ থেকে আরেকটা মাদরাসা গুড়িয়ে দেয়ার শ্লোগান ওঠে! ঐ ছেলের কাছে জিজ্ঞেস করুন! মিছবাহ কাসেমী সাহেবকে কী বলেছে? ও কোনো উত্তর দিতে পারবে না আমি নিশ্চিত। সর্বোচ্চ বলতে পারবে ‘আমি অমুক থেকে শুনেছি’, এর থেকে শক্তিশালী কোনো প্রমাণ ওর কাছে নেই। এই ‘অমুক থেকে শুনেছি’র ওপর ভিত্তি করে চলতেছে তাদের প্রোপাগান্ডা।

শুধু শুধু কীভাবে আমাকে কাসেমী সাহেবের বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে দিচ্ছে। আমি এতোটা ভয়ের কারণ তাদের? জানতাম না তো! এভাবেই বিভিন্ন সময়ে ইনিয়ে বিনিয়ে তারা আমার কুৎসা রটিয়েছে! এরা কি বাচ্চাদের এগুলোই শিক্ষা দেয়! আরে! কাসেমী সাহেবকে আমার লিখিত ‘রোহিঙ্গা শিবিরের অলিগলি’ বইতে যেভাবে উপস্থাপন করেছি, তা তোমরা অতিউৎসাহী এবং কাসেমী সাহেবের লোক দেখানো ভক্ত আছো, তারাও মনে হয় পারোনি।

আমার দেশ বিদেশে অনুরাগী ও বন্ধুবান্ধব ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। তাদের কাছে বারবার প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছি এসব বিষয়ে। আমার ব্যক্তিত্ব ও আত্মমর্যাদার ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখনও যদি চুপ থাকি, তাহলে নিজেকে আর কারো সামনে উপস্থাপন করার ক্ষেত্র থাকবে না। তারা এ পরিস্থিতি তৈরী করার পরও চুপ থাকলে তাদের মিথ্যাই মানুষ সত্য মনে করবে, তাই আমার অস্তিত্ব রক্ষায় আমাকে লড়তেই হবে।

দেখুন এদের মনমানসিকতা! ভরা মজলিসে একটা বাচ্চাকে দিয়ে কীভাবে মিথ্যাচার করাচ্ছে! আর তা শুনে স্টেজের লোকগুলি হাসছে। একটা ইসলামী রাজনীতির মঞ্চে এভাবে সার্কাস চলতে পারে জানা ছিলো না।

Muhammad Habibur Rahman Misbah

About banglamail

Check Also

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ২০ লক্ষ টাকা দিলে আপনার বাবার হত্যাকারীদের ক্ষমা করতেন ?

বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় নিহত শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব ও …