Tuesday , October 23 2018
Home / আলোচিত সংবাদ / আফরিন এখন সম্পূর্ণ নিরাপদ, সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ : তুরস্কের সামরিক বাহিনী

আফরিন এখন সম্পূর্ণ নিরাপদ, সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ : তুরস্কের সামরিক বাহিনী

তুরস্কের সেনা সদস্যরা বলেছেন, ‘আফরিনের প্রায় সব অঞ্চল আমাদের নিয়ন্ত্রণে। সরকারি সব স্থাপনায় এখন আমাদের পতাকা উড়ছে। আফরিন এখন সম্পূর্ণ নিরাপদ। সাধারণ মানুষকে তাদের বাড়ি-ঘরে ফিরে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ আমরা সন্ত্রাসীদের পরাজিত করে বিজয় ছিনিয়ে আনতে পেরেছি। আমাদেরকে সমর্থন দেয়ার জন্য আফরিনের বাসিন্দাদের ধন্যবাদ।’তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোগান বলেন- ‘ ‘আফরিন আজ আমাদের নিয়ন্ত্রণে। আমাদের সেনাদের অভিযানে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেছে। কুর্দি সন্ত্রাসীদের নির্মূলের পাশাপাশি আফরিনে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে তুর্কি সেনারা কাজ শুরু করেছে। অঞ্চলটিকে পুরোপুরি ঝুঁকিমুক্ত করতে স্থল মাইন ও বিস্ফোরক সরানোর কাজ শুরু করা হয়েছে।’আফরিনের সিটি সেন্টারসহ বিভিন্ন স্থাপনায় সিরিয়া ও তুরস্কের জাতীয় পতাকা ওড়ানোর পাশাপাশি বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে ফেলা হয় কুর্দিনেতা ব্ল্যাকস্মিথ কাওয়ারের মূর্তি। এরইমধ্যে নিজেদের বাড়ি-ঘরে ফিরতে শুরু করেছে সেখান থেকে পালিয়ে যাওয়া বাসিন্দারা।

চূড়ান্ত জয় পেয়েছে তুরস্কের সামরিক বাহিনীসিরিয়ার আফরিনে কুর্দি গেরিলাদের (ওয়াইপিজি) বিরুদ্ধে প্রায় দুই মাস অব্যহত অভিযানের পর চূড়ান্ত জয় পেয়েছে তুরস্কের সামরিক। রোববার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৮টার সময় তুর্কিবাহিনী ও সিরিয়ার বিদ্রোহী সংগঠন ফ্রি সিরিয়ান আর্মি (এফএসএ) যৌথভাবে আফরিনের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।তুর্কি বাহিনীর এক টুইটার বার্তায় বলা হয়েছে, ‘তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনী ও ফ্রি সিরিয়ান আর্মি আফরিনের সিটি সেন্টার দখলে নিয়েছে।’ ওই এলাকায় কুর্দি গোষ্ঠী কোনো ল্যান্ডমাইন বা অন্য ধরনের বিস্ফোরক পুতে রেখে গেছে কি না- তা অনুসন্ধান করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছে তুর্কি প্রশাসন।সেনাবাহিনীর শেয়ার করা এক ভিডিওতে দেখা যায়, আফরিনের সিটি সেন্টারে তুরস্কের পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া এফএসএ’র শেয়ার করা কিছু ভিডিওতে দেখা গেছে, তারা রাস্তায় আনন্দ করছে, বিজয়ের সংকেত দেখাচ্ছে ও পতাকা উড়াচ্ছে।

সবাইকে জানিয়ে দিতে নিউজটি অবশ্যই শেয়ার করুন

About editor

Check Also

দুর্ঘটনার ওপর কারও হাত নেই – জাফর ইকবাল

আমি দুর্বল প্রকৃতির মানুষ। মাঝে মাঝেই আমি খবরের কাগজের কোনো কোনো খবর পড়ার সাহস পাই …