Wednesday , October 24 2018
Home / রাজনীতি / পাকা সেতুতে উঠতে বাঁশের সাঁকো: চলিতে আওয়ামী উন্নয়ন

পাকা সেতুতে উঠতে বাঁশের সাঁকো: চলিতে আওয়ামী উন্নয়ন

সেতু আছে। তবে দু’পাশে সেতুর সংযোগ স্থাপনের মাটি সরে যাওয়ায় সড়কের সঙ্গে সংযোগে এলাকাবাসী দু’পাশে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে চলাচল করছেন। সেতুটি নির্মাণের পর এর দু’পাশের সংযোগস্থলে পর্যাপ্ত মাটি না ফেলায় প্রতিদিন দোয়ারবাজার উপজেলার ৪০টি গ্রামের লোকজনকে দীর্ঘদিন ধরে এ পদ্ধতিতে যাতায়াত করতে হচ্ছে। এ চিত্র সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার নরসিংপুর বাজার-ঘিলাছড়া সড়কের রগার খালের ওপর সেতুর।

তিন বছর আগে এ সড়কে পুরনো সেতুটি ভেঙে যায়। ২০১৬ সালে দোয়ারাবাজার উপজেলা এলজিইডি কর্তৃপক্ষ এখানে একটি নতুন সেতু নির্মাণ করে। নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পর গত বছর পাহাড়ি ঢলে এর দু’দিকের মাটি সরে গেলে দু’দিক থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করলেও তারা আজ পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এ অবস্থায় স্থানীয় লোকজন নিজেদের উদ্যোগে সেতুর দু’দিকে বাঁশ ও কাঠের সাঁকো তৈরি করেছেন।

শ্রীপুর গ্রামের প্রবাসী ছমির উদ্দিন জানান, সেতু নির্মাণের পর দু’দিকের মাটি সরে এর সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তাদের। এলাকাবাসী নিজেদের উদ্যোগে চাঁদা তুলে এর ওপর সাঁকো তৈরি করে সংযোগ রাস্তা নির্মাণ করেছেন। দুই ইউনিয়নসহ এলাকার লোকজনকে ওই সাঁকো দিয়ে ঝুঁকির মধ্যে পারাপার হতে হচ্ছে। সোনাইত্যা গ্রামের নোয়াব আলী জানান, বর্ষায় পাহাড়ি ঢলের তোড়ে সেতুটি ভেঙে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। নরসিংপুর বাজারের ব্যবসায়ী মুক্তার আলী বলেন, নরসিংপুর ও বাংলাবাজার দুই ইউনিয়নের যোগাযোগের একমাত্র সড়কের রগারখালের ওই সেতু দিয়ে প্রতিদিন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে।

নরসিংপুরের ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন আহমদ জানান, সেতুর দু’দিকে মাটি ভরাট করে প্রটেকশন বাঁধ দেওয়ার জন্য এলজিইডি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

দোয়ারাবাজার উপজেলার এলজিইডির (ভারপ্রাপ্ত) নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল মনসুর মিয়া জানান, রগার খালের ওপর নির্মিত সেতুর দু’পাশের মাটি সরে যাওয়ার পর সার্ভেয়ারের মাধ্যমে সরেজমিনে পরিদর্শন করে তাদের পক্ষ থেকে সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About editor

Check Also

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার লাশ নিতে পরিবারের অস্বীকৃতি, দাফনে বাধা

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কে এম মোশাররফ হোসেন হত্যা মামলার প্রধান …