Sunday , May 27 2018
Home / ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে / মাদ্রাসার ছাত্রদের দাড় করিয়ে গাওয়ানো হচ্ছে রবীন্দ্রনাথের সেই হিন্দুয়ানী গান !

মাদ্রাসার ছাত্রদের দাড় করিয়ে গাওয়ানো হচ্ছে রবীন্দ্রনাথের সেই হিন্দুয়ানী গান !

মাদ্রাসার ছাত্রদের দাড় করিয়ে গাওয়ানো হচ্ছে রবীন্দ্রনাথের সেই হিন্দুয়ানী গান। এই হিন্দুয়ানী গান যে যত ভালো গাইতে পারবে, তাদের মধ্যে থেকে শীর্ষ বাছাই করে ২৬শে মার্চ ঢাকা স্টেডিয়ামে এই গান গাওয়ানো হবে। এ কারণে শিক্ষামন্ত্রনালয়ের নিদের্শনা অনুসারে এই গানের প্রতিযোগীতা চলছে। (http://bit.ly/2EiEUWC)

একটা বিষয় লক্ষ্যণীয়-

মাদ্রাসা ইসলাম ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। সেই প্রতিষ্ঠানে হিন্দুয়ানী গান গাইতে বলেছে শিক্ষামন্ত্রনালয়। এক্ষেত্রে মাদ্রাসা শিক্ষকদের উচিত ছিলো এই কার্যক্রমে বাধা দেয়া বা প্রতিবাদ করা। কিন্তু মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীয় নেতা এখন পর্যন্ত এর বিরুদ্ধে কোন বিবৃতি বা প্রতিবাদ করেনি। উল্লেখ্য, এই প্রতিবাদের জন্য মাদ্রাসা শিক্ষকদের ভালো গ্রাউন্ডও ছিলো। বিশেষ করে, বাংলাদেশ ন্যাশন্যাল এন্থেইম রুলস ২০০৫ এর ৫ এর ২ ধারায় স্পষ্ট করে বলা আছে এইটি স্কুলে দিনের কার্যক্রম শুরুর আগে এই গান গাইতে হবে । এই আইন অনুসারেই মাদ্রাসায় জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক নয়। কারণ আইনে মাদ্রাসার উল্লেখ নাই। এই আইনের উপর নির্ভর করে মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীয় নেতারা আইনী প্রক্রিয়ায় এ গানের বিরুদ্ধচারণ করতে পারতো।

কিছুদিন আগে দেখা গেছে, একদল মাদ্রাসা শিক্ষক তাদের মাদ্রাসা জাতীয়করণে দাবিতে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে, বেতন-ভাতা পাওয়ার জন্য মানববন্ধন করেছে। কিন্তু এখন যে তাদের মাদ্রাসায় হিন্দু সঙ্গীত পড়ানো হচ্ছে, এর বিরুদ্ধে কেন মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীয় নেতারা দাড়াচ্ছে না ? কেন তাদের ছোট ছোট ছাত্রদের হিন্দুয়ানী গান শেখাচ্ছে ?

মাদ্রাসায় অধর্ম চাপিয়ে দিতে চাইলে তার শিক্ষক-ছাত্ররাই যদি না দাড়ায় তবে কে তাদের জন্য দাড়াবে? মুসলমানরা আসলে এখন বোবা হয়ে গেছে, তারা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে না। দুই টাকার জন্য ঠিকই মাঠে নামে, কিন্তু ধর্ম বাচানোর জন্য মাঠে নামে না। এ কারণেই বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের এত করুণ অবস্থা। আজকে যদি মাদ্রাসার ২০০ শিক্ষক-ছাত্র প্রেসক্লাবে দাড়িয়ে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতো, তবে কি সরকার এই আইন জারি করতে পারতো ? কখনই পারতো না।

Noyon chatterge

About banglamail

Check Also

এ কেমন ওড়না দেয়া ?

ইফতারের আগে হুজুরদের সাথে দোয়া করতে গিয়ে দুই পাশের দুই বাচ্চা মেয়ের সাথে শেয়ার করে …