জামায়াতের আমীররা সেচ্ছায় পদ ছেড়ে দেয়, তাদের বিরুদ্ধে ফতোয়া দিয়ে আন্দোলন করতে হ​য়না

জামায়াতে ইসলামের আমীররা বহুবার নিজেদের ভুল থেকে রুজু করেছেন অথবা দলিল প্রমাণের কাছে নিজের অমিত্ব্য কে বিসর্জন দিয়েছেন কিন্তুু এর জন্য কোন মিছিল মিটিংও করতে হয়নি পরন্তু বাইরের কেউ জানতেই পারেনি! এটাই মুখলেছ জামায়াতের আমীর এবং কর্মীদের বৈশিষ্ট্যের কারগুজারী! আপনি না মানলে কিছু করার নেই!

‘হুক্কুজ যাওযাইন’ কিতাবে মাওলানা মওদুদী রহ ভুল তথ্যের ভিত্তিতে জমহুর ওলামাদের খেলাফ ফতোয়ার পক্ষে রায় দিয়ে নিজের মতামত পেশ করেন! অতঃপর দেওবন্দী এক আলেম নিজের মাদ্রাসা থেকে প্রকাশিত পত্রিকায় সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে বিনীত স্বরে সেই ফতোয়া থেকে রুজু করতে মওদুদী রহ কে অনুরোধ করেন!

দিল্লির একটি মাহফিলে বক্তব্যর মাঝখানে কেউ একজন উক্ত পত্রিকার কপিটি মাওলানার সামনের রাখলে তিনি পুরো লেখাটি এক নিঃশ্বাসে পড়ে ফেলেন এবং দলিল প্রমানের মজবুতি দেখে সাথে সাথে ঘোষনা করলেন, যাদের কাছে আমার কিতাবটি মওজুদ আছে তারা এত পৃষ্ঠার এত এত লাইন কেটে দিবেন! নতুন সংস্করনে ভুল শুধরানো হবে ইনশাআল্লাহ! এ হচ্ছে জামায়াতের আমীরের ঈমান!

এটাই কি সেই অদৃশ্য মওদুদীবাদ ? যাকে ছেড়ে দিতে এত তাগাদা দিচ্ছেন? যদি তাই হয়, তাহলে এই সিলসিলা চলমান থাকবে ইনশাআল্লাহ!

Apu Ahmed

Comments Us On Facebook: