সরকারের ভারত প্রীতি অতিরিক্ত : জাফরুল্লাহ

সরকারের অতিরিক্ত ভারত প্রীতি রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সামাজিক শক্তির ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ কিডনি ইন্সটিটিউশনে প্রতিটি ডায়ালায়সিসের জন্য সরকার ভারতীয়দের জন্য ১৭০০ টাকা করে ভর্তুকি দিচ্ছে। অথচ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রকে সরকার ৯০০ টাকা করে ভর্তুকি দিতে রাজি হচ্ছে না। আমি একটা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে চেয়েছি, ওই ওই পত্রিকা রাজি হয়নি। পরে ওই পত্রিকার সম্পাদক আমাকে বলেছেন, নিউজ করে দিবেন। আমি অপেক্ষায় আছি কবে খবর হিসেবে এটা প্রকাশিত হবে।ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, এত উন্নয়ন যে প্রতিনিয়ত মানুষ গুম হচ্ছে। এটা উন্নয়ন না অপশাসন সেটা আগে ভাবতে হবে। যাদের অপরাধের বিচার হয়, তাদের মৃত্যুদণ্ড হয়। কিন্তু যারা গুম হয়, তাদের বিচারের অধিকারও নেই। দুর্ভাগ্য আমাদের বিচারকরা কিছুই শিখছেন না। আমাদের বিচারপতিরা আজও পাঁচ মাস ছুটি কাটান, যখন তিন লাখ মামলা ঝুলে থাকে।
তিনি বলেন, প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে দুর্নীতির একটা সম্পর্ক আছে। ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা শুয়ে আছেন। কিছু দিন আগে ৩৫ কোটি বই বিতরণ হয়েছে। তাহলে এ বই বিতরণের লাভ কী?জাফরুল্লাহ বলেন, শুধু সরকার বদলালে হবে না, মূল জায়গায় হিট না করলে কোনো সুফল আসবে না। আমাদের রাজনীতির যে কেন্দ্রীকতা এটা বদলাতে হবে। এখন একমাত্র আন্দোলন হওয়া উচিত বাংলাদেশে প্রদেশ গঠন। জনগণের শাসনব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। শুধু কোনো কোম্পানির উন্নয়ন নয়, সাধারণ মানুষের উন্নয়ন হতে হবে।সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক এম ডি হাবিবুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সদস্য সচিব মোশারেফ হোসেন মন্টু।সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর হীরু, মুক্ত রাজনৈতিক আন্দোলনের সভাপতি স্বরূপ হাসান শাহীন প্রমুখ।

Comments Us On Facebook: