Sunday , June 24 2018
Home / আলোচিত সংবাদ / ডিএনসিসি নির্বাচন>>মাঠ গরম করছেন ছোট দলের প্রার্থীরা

ডিএনসিসি নির্বাচন>>মাঠ গরম করছেন ছোট দলের প্রার্থীরা

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) আসন্ন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বাইরে ছোট দলগুলোও মাঠে নেমেছে। আইনি বাধ্যবাধকতা মাথায় নিয়েও বিভিন্ন দলের প্রায় হাফ ডজন প্রার্থী গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন। এর মধ্যে বড় চমক হচ্ছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম প্রধান শরিক জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার খবর।আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে গ্রিন সিগন্যাল পেয়ে মেয়র পদে বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম সংক্ষিপ্ত পরিসরে গণসংযোগ করছেন। অপরদিকে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী ক্রীড়া সংগঠক তাবিথ আউয়াল নগরজুড়ে আলোচনায় রয়েছেন। এই দুই বড় দলের বাইরে মাঠে সক্রিয় ছোট দলগুলোর প্রার্থীরাও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ ইন্টারনেটভিত্তিক প্রচারণায় তুঙ্গে রয়েছেন তারা। নগরজুড়ে এসব প্রার্থীর কারও কারও ব্যানার, পোস্টার ও ফেস্টুন চোখে পড়ে। তফসিল ঘোষণার পর তারা পুরোদমে প্রচারণায় নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।মাহমুদুর রহমান মান্নার ‘নাগরিক ঐক্য’, অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আ স ম আবদুর রব ও কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন ‘যুক্তফ্রন্ট’, ববি হাজ্জাজের ‘জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম)’, ইসলামী ঐক্যজোট, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন, সিপিবি-বাসদ এবং গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার গণসংহতি আন্দোলনের প্রার্থী মাঠে রয়েছেন। তবে এ নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির অংশ নেয়া বা না-নেয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত না হওয়ায় এ দলের মেয়র প্রার্থী কে হচ্ছেন তা জানা যায়নি।

বড় দুই দলের বাইরে সংক্ষিপ্ত পরিসরে যারা গণসংযোগ ও প্রচারণা চালাচ্ছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন- যুক্তফ্রন্ট থেকে নাগরিক ঐক্যের মহাসচিব চৌধুরী ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী, জামায়াতে ইসলামীর সেলিম উদ্দিন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) সভাপতি ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ, ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. ওসমান গণি, শিল্পপতি আদম তমিজি হক, জাতীয় পার্টির সাবেক নেতা এইচএম গোলাম রেজা, বিএনপি নেতা ও সাবেক ফুটবলার আমিনুল হক, আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য ডা. এইচবিএম ইকবাল, সারাহ বেগম কবরী, সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) কামরুল ইসলাম, বিএনপির সহ-প্রকাশনা সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদ, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের শেখ ফজলে বারী মাসউদ, এনডিএমের প্রার্থী ও মাইলস ব্যান্ডের প্রধান গায়ক ও সঙ্গীতশিল্পী শাফিন আহমেদ, সিপিবির জাতীয় পরিষদ সদস্য আবদুল্লাহ আল কাফি রতন ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকি। এদিকে এ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন শিল্পপতি আদম তমিজি হক। গুলশান-বনানী-বারিধারাসহ বিভিন্ন এলাকায় তার প্রচারণামূলক পোস্টার দেখা যায়।সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র মো. ওসমান গণি যুগান্তরকে বলেন, তিনি শিগগির প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে তার প্রার্থিতার কথা জানাবেন। তার মতে, তার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বিবেচনা করে দল তাকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করবে।নাগরিক ঐক্যের মহাসচিব চৌধুরী ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, আইনগত বাধ্যবাধকতার কারণে তিনি প্রকাশ্যে প্রচারণা চালাতে পারছেন না। তবে ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের প্রচারণা চালাচ্ছেন। এনডিএমের প্রার্থী শাফিন আহমেদ বলেন, এ নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতার পালাবদল ও জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটবে।

মেয়র প্রার্থী আবদুল্লাহ আল কাফি রতন বলেন, সিপিবি ও বাসদের মনোনয়ন পেয়েছি। আর বাম মোর্চার সঙ্গে আলোচনা চলছে। বাম দলগুলোর পক্ষ থেকে তাকে একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়ার কথা চিন্তাভাবনা চলছে। তিনি বলেন, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকিও মেয়র প্রার্থী হচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে আমাদের দু’জনের মধ্য থেকে যে কোনো একজনকে নির্বাচনে দেখা যাবে। কাফি আরও বলেন, ‘জামায়াতের চেয়ে বিএনপি ভালো, বিএনপির চেয়ে মন্দের ভালো। এই চিন্তাধারা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এ রাজনীতি বন্ধ করতে হবে।’সংশ্লিষ্টদের মতে, এ নির্বাচন ঘিরে সরকারি দলে কিছুটা অস্বস্তি আছে। কারণ, সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। রংপুরে দলীয় মেয়র প্রার্থীর ভরাডুবির পর ডিএনসিসির উপনির্বাচন করার উপযুক্ত সময় এখন নয় বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগের অনেক নেতা। আর বিরোধী দল ও সরকারের বাইরের দলগুলোর শঙ্কা হঠাৎ আইনি মারপ্যাঁচে নির্বাচন পেছাবে না তো? শেষতক নির্বাচন সুষ্ঠু হবে তো? এই দুই শঙ্কা-সংশয় নিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। রংপুরে দলের প্রার্থী বিজয়ী হলেও ঢাকায় নির্বাচনের ব্যাপারে জাতীয় পার্টি এখনও তৎপরতা শুরু করেনি। এ বিষয়ে পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার যুগান্তরকে বলেন, ‘প্রার্থী যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে, তবে সিদ্ধান্ত হয়নআ

About editor

Check Also

মহিলা ক্রিকেট দলের শিরোপা জয় উদযাপন করলো জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা।।(ভিডিও সহ)

মহিলা ক্রিকেট দলের শিরোপা জয় উদযাপন করলো জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা।।(ভিডিও সহ) Related