‘ইনশাআল্লাহ আমিই মনোনয়ন পাব’

বিএনপি নেতৃত্বাধিন ২০ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেছেন জামায়াতে ইসলামীর মনোনিত মেয়রপ্রার্থী মু. সেলিম উদ্দিন।বৃহস্পতিবার অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের কাছে তিনি এই আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।তফসিল ঘোষণার আগে থেকেই মেয়র প্রার্থী হিসেবে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন সেলিম উদ্দিন। গত সোমবার খালেদার সভাপতিত্বে ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে জোটের পক্ষ থেকে প্রার্থী ঘোষণা করার সিদ্ধান্তের পরও তার তৎপরতায় একটুও ভাটা পড়েনি।সেলিম উদ্দিন বিডিনিউজকে বলেন, “মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য আমার দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে। উত্তরা, বনানী, গুলশান, মোহাম্মদপুর, আদাবর, বাড্ডাসহ প্রভৃতি স্থানে আমি গণসংযোগ চালাচ্ছি। আমাদের নেতা-কর্মীরা কাজ করছেন।”রোববার রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র কিনবেন জানিয়ে তিনি বলেন, “উত্তর সিটির ভোটাররা মনে করেন, যোগ্যতম প্রার্থী হিসেবে জোটনেত্রী আমাকেই চূড়ান্ত মনোনয়ন দেবেন।”

জামায়াতের ঢাকা মহানগর উত্তরের আমির ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি সেলিম উদ্দিনের ব্যাপক প্রচারণায় ইতোমধ্যেই মিডিয়াসহ সর্বত্র মেয়রপ্রার্থী হিসেবে তার নাম আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে।বিএনপির পক্ষ থেকে প্রার্থী হিসেবে গতবারের প্রতিদ্বন্দ্বি তাবিথ আউয়ালের নাম শোনা গেলেও তার কোনো রাজনৈতিক ক্যারিয়ার না থাকায় ও রাজধানীর আন্দোলন সংগ্রামে কোনো অবদান না থাকায় তাকে মনোনয়ন না সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে বিকল্প হিসেবে সেলিম উদ্দিন জোটের প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।বিএনপি নেতা মেজর অব: আখতারুজ্জামান সম্প্রতি তার ফেসবুকে এক পোষ্টের মাধ্যমে ঢাকা উত্তরের সম্ভাব্য সকল প্রার্থীর মধ্যে সেলিম উদ্দিনকে সবচেয়ে সৎ ও যোগ্য হিসেবে তুলে ধরেছেন। তিনি জোটের পক্ষ থেকে তাকেই প্রার্থী করার পক্ষেও মত দিয়েছেন।জোটের মনোনয়ন না পেলে শেষ পর্যন্ত প্রার্থী থাকবেন কি না প্রশ্ন করা হলে সেলিম উদ্দিন বলেন, “জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী ইনশাআল্লাহ আমিই মনোনয়ন পাব। তবে এক্ষেত্রে দলীয় সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।”

বৃহস্পতিবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়েও দেখা গেছে সেলিম উদ্দিনের আইনজীবীসহ কয়েকজনকে। মনোনয়নপত্র না কিনলেও ভোটার তালিকার সিডি নিয়েছেন তারা।এদিকে মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করতে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির নেতাদের আগামী শনিবার বৈঠকে ডেকেছেন খালেদা জিয়া।এই উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে আগামী ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। তা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৯ জানুয়ারি। ভোট হবে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি।

Comments Us On Facebook: