ডিএনসিসি নির্বাচনে কেন ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে সেলিম উদ্দিন এগিয়ে?

ডিএনসিসি নির্বাচনে কেন ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে সেলিম উদ্দিন এগিয়ে? রাজনৈতিক ময়দানের বিতর্ক সামাজিক মাধ্যমে গুঞ্জন তৈরী করেছে। ডিএনসিসিতে কে ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থী হিসেবে বেশি এগিয়ে? তাবিথ আউয়াল? নাকি সেলিম উদ্দিন? এখানে কিছু বিষয় আলোচনার দাবি রাখে।

জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী সেলিম উদ্দীন একজন পরিচিত ও তুখোড় রাজনীতিবিদ। তিনি দক্ষিন-পূর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ছিলেন। সর্ববৃহৎ ইসলামী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর। একজন প্রজ্ঞাবান রাজনীতিবিদ হিসেবে সারাদেশে তার খ্যাতি রয়েছে। আওয়ামী লীগের অবৈধ ক্ষমতা দখল ও গণতন্ত্র হত্যার বিরুদ্ধে ২০ দলীয় জোটের আন্দোলনে রয়েছে তার ঐতিহাসিক ভূমিকা ও দুর্দম উপস্থিতি। টিপাইমুখ বিরোধী আন্দোলনে ছিল তার সরব উপস্থিতি।

বিগত ডিএনসিসি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়ালে ছাত্র রাজনীতিতে তেমন কোন ঐতিহাসিক ভূমিকা পাওয়া যায় না। বিএনপির রাজনীতিতেও তিনি অপরিচিত মুখ। বিগত ডিএনসিসি নির্বাচনে বিএনপি মেয়র প্রার্থী হিসেবে আব্দুল আউয়াল মিন্টুর নাম ঘোষণা করলে প্রোফাইলে তিনি ইচ্ছাকৃত বেশ কিছু অসঙ্গতি দেখিয়ে তার পুত্র তাবিথ আউয়ালের নাম প্রস্তাব করেন। বিএনপিও তাকে প্রার্থী হিসেবে মেনে নেয়। কিন্তু রাজনৈতিক ক্যারিয়ার না থাকা এবং অনভিজ্ঞতাসহ নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের ব্যর্থতায় সময়ের আগেই নির্বাচন বয়কট করেন তাবিথ আউয়াল। তাছাড়া অবৈধ আওয়ামী সরকার বিরোধী আন্দোলনেও রাজপথে তার তেমন কোন উপস্থিতি দেখা যায় নি।

প্রার্থীতা ঘোষণার ক্ষেত্রে যোগ্যতার এসব বিষয় বিবেচনা করলে জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী সেলিম উদ্দীনকেই এগিয়ে রাখবে ভোটাররা। এখন দেখা যাক ২০ দলীয় জোট কাকে এগিয়ে রাখে।

Comments Us On Facebook: