Thursday , October 18 2018
Home / জাতীয় / ৬৪ জেলায় ১৫০ প্রার্থীর আগাম দৌড় সবুজ সংকেতে ৬৪ জেলায় শতাধিক ছাত্রনেতার লবিং শুরু

৬৪ জেলায় ১৫০ প্রার্থীর আগাম দৌড় সবুজ সংকেতে ৬৪ জেলায় শতাধিক ছাত্রনেতার লবিং শুরু

জে,জাহেদ অনুসন্ধানী প্রতিবেদকঃ ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারে এমন সবুজ সংকেতে ৬৪ জেলায় ১৫০ তরুণের নাম বিভিন্ন জরিপে ঘোরপাক খাচ্ছে। মাঠে নির্বাচনী জরিপ করা বিল্ট বেটার বাংলাদেশ কেএইচএন রিসার্চ টিম ও একাধিক প্রার্থীর নাম

জাতীয় গনমাধ্যমে প্রকাশ করেছে এমন তথ্য রয়েছে।
যারা আগামীতে রাজনৈতিক ভাবে মাঠে জনপ্রিয়তা নিয়ে সাহস করে প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পেতে পারে তাদের তালিকায় দেখা গেছে বেশির ভাগ ছাত্রনেতা আর ব্যবসায়ীরা। আজ ২২ডিসেম্বর দৈনিক মানবকন্ঠের ৩য় পাতা লক্ষ্য করলে চিত্রটি ফুটে ওঠবে।

তবে নতুন মুখগুলোর বেশির ভাগই সাবেক ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও বর্তমান আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও ব্যবসায়ী। এ ছাড়া আওয়ামী লীগ-সমর্থিত বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারাও রয়েছেন এই দলে।

মনোনয়ন প্রত্যাশী আর আগামী ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যারা প্রার্থী হতে পারেন। এসব আলোচিত নেতাদের মধ্যে যাদের নাম গনমাধ্যম ও জরিপে এসেছে। তা আমাদের প্রতিবেদক গত দুই বছরের সমস্ত পত্রিকার সংবাদ পর্যালোচনা করে যাদের নাম পেয়েছেন তার একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা ধারণ করেছেন।

তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তারা হলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল (নেত্রকোনা-৩), আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, সচিব আব্দুল মালেক (পটুয়াখালী-১), সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম (শরীয়তপুর-২), কৃষি ও সমবায়বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী (লক্ষ্মীপুর-৪) ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী (চাঁদপুর-৩)।
চট্টগ্রাম-১ (মিরসরাই) উপজেলা আঃলীগ নেতা ইন্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন,চট্টগ্রাম -২ (ফটিকছড়ি) সাবেক এমপি রফিকুল আনোয়ারের মেয়ে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ নেতা খাদিজাতুল আনোয়ার সনি,চট্টগ্রাম -৩ (সন্দ্বীপ) উপজেলা চেয়ারম্যান মাষ্টার শাহজাহান, চট্টগ্রাম -৪ (সীতাকুন্ড) উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন,চট্টগ্রাম -৫ (হাটহাজারী) চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম.এ সালাম, ইউনুচ গনি চৌধুরী,চট্টগ্রাম -৬ (রাউজান) যুবলীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী, মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন,চট্টগ্রাম -৭ (রাঙ্গুনিয়া) ,উপজেলা চেয়ারম্যান আলী শাহ,চট্টগ্রাম -৮ (বোয়ালখালী) দক্ষিন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদ,চট্টগ্রাম -৯ (কোতোয়ালী), কেন্দ্রীয় নেতা মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাংবাদিক ও পেশাজীবী নেতা রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম -১০ (ডবলমুরিং) সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার,চট্টগ্রাম -১১ (পতেঙ্গা-হালিশহর) নগর আওয়ামী লীগ নেতা খোরশেদ আলম সুজন,চট্টগ্রাম -১২(পটিয়া) এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদ,চট্টগ্রাম -১৩ (আনোয়ারা) আনিসুজ্জমান চৌধুরী রণি,চট্টগ্রাম -১৪ (চন্দনাইশ) ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমদ আসিফ,চট্টগ্রাম -১৫ (সাতকানিয়া) সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুর ইসলাম,চট্টগ্রাম -১৬ (বাঁশখালী) চৌধুরী মো: গালিব, শিল্পপতি মুজিবুর রহমান সিআইপি, কক্সবাজার ১ আসনে জেলা আওয়ামী লীগের মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম সজীব,কক্সবাজার ২ বর্তমান এমপি আশেক উল্লাহ রফিক ও ওসমান গণির নাম আলোচনায় রয়েছে,কক্সবাজার ৩ আসনে ছাত্রনেতা ইশতিয়াক আহমেদ জয়,কক্সবাজার ৪ আসনে সাংবাদিক তোফাইল আহমেদ।

কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য এ বি এম রিয়াজুল কবীর কাওছার (নরসিংদী-৫), নেত্রকোনা-৫ আসন থেকে আাওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহউদ্দিন সিরাজ,মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে প্রচারণায় নেমেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম,অন্যদিকে ফরিদপুর-১ আসনে রীতিমতো জাগরণ তৈরি করেছেন সাবেক ছাত্রনেতা এবং ঢাকাটাইমস ও সাপ্তাহিক ‘এই সময়’ সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন, ফরিদপুর-১ আসন (বোয়ালমারী- মধুখালী-আলফাডাঙ্গা) থেকে ছাত্রনেতা লিয়াকত শিকদার,পটুয়াখালী-বাউফল( ২) আসনটিতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জোবাইদুল হক রাসেল,কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি (জামালপুর-৫), নুরুল ইসলাম ঠাণ্ডু, হাসান আলী (সিরাজগঞ্জ-১), হাবিবুর রহমান স্বপন, চয়ন ইসলাম (সিরাজগঞ্জ-৫), গাইবান্ধার-৫ সাঘাটা ফুলছড়ি) ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন,আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আমিরুল আলম মিলন এবং ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ (বাগেরহাট-৪), নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি এ এইচ এম মাসুদ দুলাল, ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খলিলুর রহমান, মহিলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক রোজিনা নাসরীন (বরগুনা-১), কোহেলি কুদ্দুস মুক্তি (নাটোর-৪),নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান দিপু (নারায়ণগঞ্জ-৫), ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজের সাবেক ভিপি সাজ্জাদ হোসেন শাহীন (ময়মনসিংহ-৪), ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বাহাদুর বেপারী (শরীয়তপুর-৩)। ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর মাগুরা-১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না পিরোজপুর-২ আসনের নৌকার টিকিট প্রত্যাশী,কুড়িগ্রাম ১ আসন হতে ডাঃ মাহফুজার রহমান উজ্জাল,কুড়িগ্রাম ৪ আসনে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম ছাড়া কোন বিকল্প নেই বলে সবকটি জরিপে ওঠে এসেছে।

পিরোজপুর-১ আসনে আলোচিত হয়ে উঠেছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ সাকিব বাদশা। পটুয়াখালী-১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহসম্পাদক আলী আশরাফ,আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত আব্দুল জলিলের ছেলে নিজাম উদ্দিন জন নওগাঁ-৫ আসনে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। নড়াইল-১ আসন বা ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে নারী সংসদ সদস্য ফজিলাতুন্নেসা বাপ্পী, মনিরুজ্জামান মনির (ঝালকাঠি-১), শফি আহমেদ (নেত্রকোণা-৪), অজয় কর খোকন কিশোরগঞ্জ-৫ আসনে,ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আজিজুল হক রানাও,পনিরুজ্জামান তরুণ

(ঢাকা-১),আওলাদ হোসেন (ঢাকা-৪), স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিমের বড় ছেলে সোলায়মান সেলিম (ঢাকা-৭), আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছার, যুবলীগের ইসমাঈল চৌধুরী সম্রাট (ঢাকা-৮), সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিন (ঢাকা-১৪), যুবলীগের মঈনুল হোসেন খান নিখিল, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু (ঢাকা-১৫), ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ,ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান মনোনয়নপ্রত্যাশী ঢাকা-১৩ আসনে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ সোহেল রানা টিপু (রাজবাড়ী-২)।

এদিকে অনান্য আসনে মনোনয়নে লড়তে পারেন নারী সংসদ সদস্য নূরজাহান বেগম মুক্তা (চাঁদপুর-৫),মহিলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী ও জহিরউদ্দীন মাহমুদ লিপটন (ফেনী-৩), সাবেক ছাত্রনেতা ও মঠবাড়িয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমান (পিরোজপুর-৩), নারী সংসদ সদস্য সেলিনা আক্তার লিটা, এমদাদুল হক (ঠাকুরগাঁও-৩), জামালপুরের ইসলামপুর থেকে নারী সংসদ সদস্য মাহজাবিন খালেদ, ময়মনসিংহ-৮ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইশ্বরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান সুমন, বিশ্বনাথ সরকার বিটু (রংপুর-২), সাফিয়া রহমান (রংপুর-৩), রাশেক রহমান, জাকির হোসেন সরকার (রংপুর-৫), কামাল আহমেদ তালুকদার, অ্যাডভোকেট মমতাজ (নীলফামারী-২) মাজহারুল হক প্রধান, আনোয়ার সাদাত সম্রাট (পঞ্চগড়-১), আব্দুল মালেক চিশতি (পঞ্চগড়-২), আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী (লক্ষীপুরের রামগতি ও কমলনগর),ঢাকা মহানগর উত্তর যুব মহিলালীগের সভানেত্রী ও মহিলা এমপি সাবিনা আক্তার তুহিন,মনিরুজ্জামান মনির, বদিউজ্জামান সোহাগ,আমিরুল আলম মিলন,এ বি এম রিয়াজুল কবীর কাউসার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ সোহেল রানা টিপু,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ সাকিব বাদশাহ সহ অনেকে মাঠে নিজ নিজ এলাকায় সক্রিয় রয়েছেন।

নির্বাচনে মনোনয়ন চাইবেন কিনা জানতে চাইলে কক্সবাজার ৩ আসনের ছাত্রনেতা ইশতিয়াক আহমেদ জয় বলেন, অনেকের মত আমিও অন্যের মুখে আর সংবাদ মাধ্যমে আমার প্রার্থী হওয়ার সংবাদটি শুনেছি এবং শুনে অবাকও হয়েছি। সত্যি বলতে কি এখন পর্যন্ত আমি আমার প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে তেমন কিছুই ভাবিনি।
তবে আমার প্রানপ্রিয় নেত্রী আমাকে যখন যেখানে যেভাবে কাজ করার নির্দেশ দিবেন আমি সেখানে কাজ করতে নিজেকে প্রস্তুত রেখেছি।

নির্বাচনে অংশ নেয়ার প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন বলেন, এলাকার জনগণের সুখে-দুঃখে পাশে থাকতে চাই সব সময়ই। দলের হয়েই জনগণের পাশে থাকার চেষ্টা করি। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা মনোনয়ন দিলে নির্বাচনে অংশ নেব”।

সারাদেশে ৬৪ জেলায় নতুন আর পুরাতন মিলে প্রায় ১৫০ প্রার্থীর নাম বিভিন্ন গনমাধ্যম আর জরিপে নাম ওঠে এসেছে। তবে মনোনয়ন চুড়ান্ত পর্যায়ে রুপ না পাওয়া পর্যন্ত কেহ নিশ্চিত নন। কেননা কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড পুর্বের মতো নয় বরং অনেকটা কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে নতুন পুরাতন প্রার্থীদের। এমনই ইংঙ্গিত পাচ্ছে আওয়ামী দলীয় নেতারা।

About banglamail

Check Also

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার লাশ নিতে পরিবারের অস্বীকৃতি, দাফনে বাধা

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কে এম মোশাররফ হোসেন হত্যা মামলার প্রধান …