Tuesday , June 19 2018
Home / আন্তর্জাতিক / মুসলমানকে পেট্রল ঢেলে জীবন্ত অবস্থায় পুড়িয়ে মারলো ভারতীয় হিন্দু জঙ্গি ! (ভিডিওসহ)

মুসলমানকে পেট্রল ঢেলে জীবন্ত অবস্থায় পুড়িয়ে মারলো ভারতীয় হিন্দু জঙ্গি ! (ভিডিওসহ)

ভারতের রাজস্থানে শম্ভুলাল নামে একজন হিন্দু জঙ্গী পশ্চিম বঙ্গ থেকে সেখানে রাজমিস্ত্রির কাজ করতে যাওয়া মোহাম্মদ আফরাজুল নামে একজন মুসলমান কে গাঁইতি ও চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করার পর পেট্রল ঢেলে জীবন্ত অবস্থায় তাকে পুড়িয়ে মেরেছে। পুরো ঘটনাটি ভিডিও করেছে শম্ভুলালের ১৪ বছর বয়স্ক ভাতিজা।

ঘটনার পর শম্ভুলাল আরো একটি ভিডিওতে দাবি করেছে, সে একজন ধর্মপ্রাণ হিন্দু, “হিন্দুরাষ্ট্র ভারতে ‘জিহাদী’ মুসলমানদের উপস্থিতি মেনে নিতে তার কাছে অসহ্য লাগে। ২৫ বছর আগে বাবরি মসজিদ ভাঙার পরও এখনো পর্যন্ত সেখানে রাম মন্দির প্রতিষ্ঠা না হওয়ায় সে ক্ষুব্ধ, তাই সে একজন মুসলমান কে হত্যা করে সকল মুসলমানদের জন্য একটি বার্তা দিয়েছে। আফরাজুলের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেবার সময়ও সে একই কথা বলছিল।”মুসলমানমাত্রেই জিহাদী ও লাভজিহাদী, এদের ভারতে কোনো স্থান নাই,” তার ভিডিওবার্তাতে সে বলেছে।

এই মর্মান্তিক ঘটনার পর এটিকে ‘লাভ কিলিং’ আখ্যা দিয়ে হালকা করার জন্য জঙ্গীবাদী হিন্দু সংগঠনের নেতারা দাবী করেছে আফরাজুল একজন হিন্দু নারীকে ভালোবাসতো, নেই নারীকে ধর্মান্তরিত করে মুসলমান বানানোর সম্ভাবনা ছিল বলে তাকে শম্ভুলাল হত্যা করেছে। পুলিশ ও সাংবাদিকেরা ৫১-বছর বয়সি আফরাজুলের কোনো হিন্দু প্রেমিকার অস্তিত্ব এখনো খুঁজে পায়নি। আর যে সমস্ত সমাজকর্মী ও সাংবাদিকেরা শম্ভুলালের ভিডিওগুলি খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখেছে তারা জানিয়েছে যে কোনো ভিডিওতেই ওই হিন্দু জঙ্গী আফরাজুল কোনো হিন্দু মেয়েকে ধর্মান্তরণ বা বিয়ে করার পরিকল্পনা করেছে এমন কথা বলেনি।

অন্যদিকে পুলিশ এটিকে সাম্প্রদায়িক হত্যাকাণ্ডের ধারায় মামলা হিসেবে না নিয়ে শম্ভুলালকে মানসিকভাবে অসূস্থ্য দাবি করছে। যদিও এনডিটিভির সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বলেছে তারা আদালতে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করবে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারতে জঙ্গী হিন্দুদের সাম্প্রদায়িক হামলায় পেহলু খান, মোহাম্মদ আখলাকসহ আরো অনেকগুলো আলোচিত হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, যার কোনটিকেই সাম্প্রদায়িক হত্যাকাণ্ড হিসেবে পুলিশ আমলে নেয়নি এবং এখনো পর্যন্ত একটি হত্যাকাণ্ডের আসামীরও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি হয়নি। কিছুদিন পরই তারা সসম্মানে মুক্তি পেয়ে বিজেপি বা বজরঙ দলের বড় নেতা বনে গেছে।

শম্ভুলালের ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম হবার কোন কারণ নেই। আদালতে প্রমাণ করে দেয়া হবে শম্ভুলাল মানসিক রোগি, তারপর কিছুদিন মানসিক হাসপাতালে রেখে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। অতঃপর শম্ভুলাল হয়ে যাবে বিজেপি বা বজরঙ দলের শীর্ষ নেতা। ফেসবুক-ট্যুইটারে হিন্দুত্ববাদীরা ইতিমধ্যেই শম্ভুলালকে তার “বীরত্বের” জন্য হিন্দু নায়ক আখ্যা দিয়েছে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মুসলমানদের উপর নির্যাতনের, বিশেষ করে ভারতের জঙ্গী হিন্দু কর্তৃক মুসলামনের উপর নির্যাতনের কোন ছবি বা ভিডিও প্রকাশ করতে দেয় না। প্রকাশ করলেও সেই আইডির মালিককে ১ মাসের জন্য ব্লক করে দেয়। সেই কারণে আমি এখানে ভিডিওটি দিলাম না। পুরো ভিডিওটি আমি মিডিয়াফায়ারে আপলোড করে দিলাম। কেউ চাইলে সেটা ডাউনলোড করে দেখতে পারেন।

http://www.mediafire.com/file/dbnn5njbdcvo49f

wahiduzzaman

About banglamail

Check Also

জণগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে হলে সবার আগে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে আমাদের : দেশনায়ক তারেক রহমান

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক জনাব তারেক রহমান বলেছেন, দেশের কি অবস্থা দেশের …