দুর্গাপুরে উচ্চ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে চলছে অবাধে বালু উত্তোলন

কলিহাসান,দুর্গাপুর(নেত্রকোনা)প্রতিনিধি: জেলার দুর্গাপুর কুমার দ্বিজেন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরীতে পরিবেশ আইনবিদ সমিতি(বেলা) এর আয়োজনে কমিউনিটি কনসালটেশন প্রেক্ষিত বালু উত্তোলন বিষয়ে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্টিত হয়।

বুধবার বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও সুজন সাধারন সম্পাদক মোঃ নূরুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় এনজিও পরিষদের সভাপতি পঙ্কজ মারাকের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত বৈঠকে প্রধান অতিথি ছিলেন সুজন সভাপতি অজয় সাহা। বিশেষ অতিথি ছিলেন আদিবাসী নেতা মতিলাল হাজং, প্রেসকাব সভাপতি নিতাই সাহা,সাধারণ সম্পাদক মোঃ তোবারক হোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ মোহন মিয়া, এস.এম.রফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক জামাল তালুকদার, ধ্রুব সরকার, নির্মলেন্দু সরকার বাবুল, এন.সি সরকার, কলি হাসান।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রভাষক মোঃ ওবায়দুল্ল্যা, মোস্তফা কামাল লিটন ,শমছের আলী খান প্রমূখ। মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন পরিবেশ আইনবিদ সমিতি(বেলা) এর গবেষনা কর্মকর্তা সোমনাথ লাহিড়ী।

বক্তারা বলেন উচ্চ আদালতের নির্দেশনা থাকা স্বত্ত্বেও প্রশাসনের নীরব ভূমিকায় দুর্গাপুর পৌরশহরের পূন্যাহবাড়ী ঘাটের পৌর শহর রক্ষা বাধের খুব নিকটে বাংলা ড্রেজার বসিয়ে দিনরাত্রি চলছে বালু ও অবৈধ নুড়ি পাথর উত্তোলন। ফলে শতাধিক ড্রেজারের শব্দ দূষনে তেরীবাজার ও বাঁধ পার্শ্ববর্তী বৃদ্ধ নারী শিশুরা অস্থিরতায় আছেন। নদীর গভীর থেকে বালু উত্তোলনের পাশাপাশি উঠে আসছে নুড়ি পাথর।

এত করে মাটির তলদেশ নষ্ট হয়ে শহর রক্ষা বাঁধ হচ্ছে হুমকীর সন্মুখীন, শত শত বাংলা ড্রেজার চলছে শ্যালো ইঞ্জিন দিয়ে যার ফলে এর পুরা তেল মবিল পানিতে মিশে নষ্ট হচ্ছে জলজ প্রানি । প্রাণি উদ্ভিদ শেওলা ফাইটোপাটন না হওয়ায় মাছের খাদ্য নষ্ট হয়ে যায়। আইনে বলা আছে সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত বালু উত্তোলন করা কিন্তু মানা হচ্ছে কোন নিয়ম কানুন। চলছে দিবানিশি বালু উত্তোলন।

এ সমস্ত পরিবেশের কারণে আজ এই অঞ্চলের জন দূর্ভোগ চরমে। ্এলাকাবাসীর দাবী নিয়ম মেনে চলুক বালু উত্তোলন ,পরিকল্পিতভাবে নদী খনন হউক । নাহলে অচিরেই হারিয়ে যাবে দুর্গাপুরের মানচিত্র থেকে অনেককিছু।

Comments Us On Facebook: