নাস্তিকেরা নাকি ধর্মে বিশ্বাস করেনা, তাহলে ক্যাথলিক ধর্মের দেবীর জন্য কান্নাকাটি করে কেন ?

– ‘কী ব্যাপার? এতো হাউকাউ করছেন কেনো?’

– ‘আর বইলেন না। গতরাতে নাকী সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্যটি সরিয়ে নিয়েছে।’

– ‘ও তাই নাকি? তা, এইটা কীসের মূর্তি ছিলো?’

– ‘(রাগি রাগি চেহারায়, চোখ বড় বড় করে) অই মিয়া, ফাইজলামী পাইছেন? ভাস্কর্য আর মূর্তির পার্থক্য বুঝেন?’

– ‘স্যরি স্যরি ভাই। এটা কীসের ভাস্কর্য ছিলো?’

– ‘ন্যায়ের প্রতীক।’

– ‘এইটা যে ন্যায়ের প্রতীক, তা কোথায় পেয়েছেন?’

– ‘গ্রীক পুরাণে।’

– ‘গ্রীক পুরাণটা কী জিনিস?’

– ‘প্রাচীন গ্রীকদের ধর্মগ্রন্থ।’

– ‘একটু খুলে বলুন না, প্লিজ?

– ‘গ্রীক পুরাণে আছে, দেবী থেমিস হলো ‘টাইটান’ দেব-দেবীদের মধ্যে একজন। দেবরাজ জিউসের সাথে দেবী থেমিসের মিলনের ফলে মোট ৬ জন সন্তানের জন্ম হয়। তারাও পরে দেব-দেবীতে পরিণত হয়। গ্রীক পুরাণে এই দেবী থেমিস ছিলেন একজন ন্যায়ের প্রতীক……..’

– ‘ব্যস! ব্যস! ব্যস!’

– ‘কী হইলো?’

– ‘কিছুনা। আপনি ধর্মে বিশ্বাস করেন?’

– ‘মাথা খারাপ? বানোয়াট, আজগুবি জিনিসে আমি বিশ্বাস করিনা।’

– ‘আপনার মতে, ধর্মগুলো বানোয়াট?’

– ‘হু’

– ‘হিন্দু ধর্ম, ইসলাম ধর্ম, খ্রিষ্ঠান ধর্ম এসব বানানো?’

– ‘হু’

– ‘ক্যাথলিকদের ধর্মও?’

– ‘হ্যাঁ ভাই। বাঙলা বুঝেন না?’

– ‘আচ্ছা। তাহলে, ধর্মগুলো যদি বানোয়াট হয় এবং ক্যাথলিক ধর্মও যদি কল্পিত হয়, তাহলে গ্রীক পুরাণও বানোয়াট, রাইট?’

– ‘তো? ‘

– ‘গ্রীক পুরাণ বানোয়াট হলে, দেবী থেমিসের কাহিনীও বানোয়াট। আর দেবী থেমিসের কাহিনী বানোয়াট হলে ধরে নিতে পারি, দেবী থেমিস বলে কেউ কখনো ছিলোনা।দেবী থেমিস বলে কেউ যদি না থাকে, তাহলে এটাও ধরে নিতে পারি যে, উনার ‘ন্যায়ের প্রতীক’ হবার কাহিনীও বানোয়াট। সুতরাং, একজন নাস্তিক হিসেবে, বানোয়াট জিনিসের উপর ভিত্তি করে তৈরি হওয়া একটা মূর্তি অপসারণে হাউকাউ না করে আপনার তো আরো খুশি হওয়া উচিত।’

– ‘ধুর! তুমি মিয়া একটা ছাগু! মৌলবাদী…….’

Arif Azad

Comments Us On Facebook:

One thought on “নাস্তিকেরা নাকি ধর্মে বিশ্বাস করেনা, তাহলে ক্যাথলিক ধর্মের দেবীর জন্য কান্নাকাটি করে কেন ?

  • June 8, 2017 at 8:31 am
    Permalink

    আরে পন্ডিত রা এটা কোনো দেবীর মূর্তি না। যতসব মূর্খ রা নিউজ লিখতে বসে যায় জানে না কিছুই!

Leave a Reply