বিশ্বাস হচ্ছিল না, আসলেই প্রধানমন্ত্রী এমন কথা বলেছেন?

রাতেই একটি নামকরা অনলাইন পোর্টালে দেখলাম প্রধানমন্ত্রী গতকাল বলেছেন যে, এখন দেশে ১৬ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত উত্পাদিত হচ্ছে । তিনি এও বলেছেন বিএনপি সরকারের সময় দেশে নাকি মাত্র ১৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত উত্পাদিত হতো। পড়ে তাজ্জব বনে গেলাম। বিশ্বাস হচ্ছিল না প্রধানমন্ত্রী যিনি আবার বিদ্যুত জ্বালানিরও মন্ত্রী এমন আজগুবি তথ্য দিতে পারেন।

আজ সকালে প্রথম আলো পড়ে একই বক্তব্য পেলাম। বিদ্যুত ও জ্বালানি সেক্টরে দীর্ঘদিন রিপোর্টিং এ জড়িত থাকায় জানা ছিল কত বিদ্যুত উত্পাদিত হচ্ছে। তবু পিডিবির ওয়েব সাইট ঘুরে এলাম। দেখলাম হোম পেজের বাম পাশেই ৭ ডিসেম্বরের প্রকৃত উত্পাদন এবং ৮ ডিসেম্বরের সম্ভাব্য উত্পাদনের তথ্য আছে (স্ক্রিন শট) ।

দিনে ৬০৫৪ আর সন্ধ্যায় ৬৮০০ মেগাওয়াট। এ হিসাবেও শুভঙ্করের ফাঁক আছে। সেটা স্বল্প পরিসরে আলোচনা সম্ভব নয়। প্রশ্ন হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী ৯ হাজার মেগাওয়াট বাড়িয়ে বললেন কেন? বিদ্যুত কি মুখে উত্পাদন করা যায়? বাড়তি প্রায় ৯ হাজার মেগাওয়াট কোথায়? কে উতপাদন করে? কোথায় বিতরণ হয়। বাড়িয়ে দাবিরওতো একটা সীমা থাকা চাই। আর বিএনপির সময় ১৬০০ না ৩৮০০থেকে ৪০০০ মেগাওয়াট উত্পাদিত হতো তাও পিডিবির সাইটে আর্কাইভে ঢুকলেই জানা যায়। জানা থাকা ভালো দেশের সব উত্পাদিত বিদ্যুত পিডিবি কিনে তার পর বিতরণ কোম্পানির কাছে বিক্রি করে।
বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী যেটা বলেননি তা হচ্ছে- ৮ বছরে বাড়তি ৪/৫ হাজার বিদ্যুতের জন্য দেশ কত হাজার কোটি টাকা গচ্ছা দিয়েছে? রেন্টাল ও কুইক রেন্টালের নামে কত হাজার কোটি লোপাট ও বিদেশে পাচার হয়েছে? আর আমরা আম পাবলিকরা আড়াই টাকা ইউনিটের বিদ্যুত ৮দফা দাম বৃদ্ধিতে এখন কত টাকায় কিনছি সে কথা না ই বা বললাম।

মুহাম্মদ আবদুল্লাহ

Comments Us On Facebook: