পতাকা জড়িয়ে রাখলেই রাজাকাররা হয়ে যায় মুক্তিযোদ্ধা, স্বৈরশাসক হয়ে যায় গণতন্ত্রের রক্ষক !

একটা দেশ বা জাতিকে অাইডেনটিফাই করার জন্য স্বদেশের “জাতীয় পতাকা” একটি প্রতীক বা চিহ্ন হিসেবে ব্যবহৃত হয়।জাতীয় পতাকাকে বুকে বা মাথায় ধারন করা কোনোভাবেই দেশপ্রেমের বহিঃপ্রকাশ হতে পারেনা।ইতিহাস থেকে কেবল শিক্ষা গ্রহন করাই যায়,কিন্তু ইতিহাসকে অাঁকড়ে ধরে মনেমনে প্রতিশোধ স্পৃহা লালন করা কোনোভাবেই শুভ হতে পারেনা।আমি,আমেরিকার পতাকার জুতা দেখেছি,শর্ট প্যান্টও পরেছি।ধর্মীয় কুসংস্কারের মতো এটাও একটা কুসংস্কার। বুকে পতাকা, মাথায় পতাকা,মনে বিভিন্ন চেতনা লালন করে দেশের টাকা সুইচ ব্যাংকে রাখা কতটুকু যুক্তিযুক্ত তা আমার বোধগম্য নই।গাড়ীর সামনে লাল সবুজের পতাকা, অফিসের সামনে পতাকা,অফিসের রুমেও পতাকা,কিন্তু সেই অফিস থেকেই আসছে এমন সব নির্দেশনা যা রীতিমতো দেশ ও জনগনকে মেরুদন্ডহীনতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আদালতের সামনে পতাকা,বিচারকের টেবিলেও পতাকা,সংসদের সামনে পতপত করে উড়তেছে লাল সবুজের পতাকা।এই পতাকা গুলো চুরি,ডাকাতি,সন্ত্রাসী, অবিচারেরই প্রতিনিধিত্ব করছে মনেহয়।

পতাকা জড়িয়ে চুরি করলে সেটা কিন্তু বৈধ,এটাই জানান দিচ্ছে ৫৬ হাজার বর্গমাইলের লাল সবুজের কাপড়ের টুকরোটি।পতাকা জড়িয়ে যা খুশি তাই করতে পারেন,এটা এখন বৈধতার লাইসেন্স। কারন,পতাকা জড়িয়ে রাখলেই রাজাকাররা হয়ে যায় মুক্তিযোদ্ধা, আর স্বৈরশাসক হয়ে যায় গণতন্ত্রের রক্ষক একাধারে সরকারী আর বিরোধীদল।সবাই সবার মতো করে দেশ গঠন করতে চাই।তবে,সবারই চাওয়া একটা,আমাদেরকে বৈধতার লাইসেন্স হিসেবে পতাকা দাও।পতাকা ছাড়া দেশ সেবা করা নাকি কঠিন!!পতাকা ছাড়া সবই কঠিন,শুধু হরতালটা জায়েজ। গঠনমূলক সমালোচনা কোথাও নেই।সবাই সবার মতো করে উদ্ভট সব বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে। যদিও তা জনগনের কাছে অসহনীয়।বাংলাদেশে ইতিমধ্যে হার্ট এ্যাটার্ক,ব্রেন স্ট্রোক মাত্রা ছাড়িয়েছে।কারন হিসেবে আমার কাছে ধরা পড়েছে,রাজনৈতিক নেতাদের মিথ্যাচার।

এরা এতোই মিথ্যা বলতে পারে,জনগনের সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে গেছে।এখন সমানে সবাই হাসপাতালের বেডে।বলেছিলাম,আমেরিকার পতাকা দিয়ে বানানো শর্ট প্যান্টের কথা,আমেরিকানরা যখন বাথরুমে যায় তখন শর্ট প্যান্ট খুলতেই দেশের পতাকা চোখে পড়ে।তখনই,তারা ভাবে বাথরুমে পানি অপচয় করা যাবে না।পানির বিকল্প হিসেবে টিস্যু পেপার ব্যবহার করাই দেশ সেবার অংশ হিসেবে ইতিহাসে লেখা থাকবে।যেমনটা আমি লিখলাম।এই কারনেই সারাবিশ্ব আজকে মার্কিনদের হাতে।জেরুজালেম কেন,সৌদিআরব হোক ইজরাইলের আরেক প্রদেশ।কারো কিছু করার আছে?

Samsul Huda Jissan

Comments Us On Facebook: